ইউক্রেনের ২০% ভূখণ্ড দখল করে রেখেছে রাশিয়া : জেলেন্সকি – ২৪ বাংলাদেশ নিউজ
শুক্রবার , ৩ জুন ২০২২ | ১৯শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও বিচার
  4. আন্তর্জাতিক
  5. এক্সক্লুসিভ
  6. খুলনা
  7. খেলা
  8. গাজীপুর
  9. চট্টগ্রাম
  10. চাকুরীর খবর
  11. ঢাকা
  12. ফটোগ্যালারি
  13. বরিশাল
  14. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  15. বিনোদন

ইউক্রেনের ২০% ভূখণ্ড দখল করে রেখেছে রাশিয়া : জেলেন্সকি

প্রতিবেদক
২৪ বাংলাদেশ নিউজ বার্তাকক্ষ
জুন ৩, ২০২২ ৮:৪৩ পূর্বাহ্ণ

রুশ বাহিনী ইউক্রেনের ভূখন্ডের প্রায় ২০% দখল করে রেখেছে বলে বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি জানান। এই সংঘাতে সম্মুখ যুদ্ধক্ষেত্র ১,০০০ কিলোমিটারেরও বেশি দীর্ঘ।

 

জেলেন্সকি বলেন, যদিও তার দেশ সকল সহায়তার জন্যই কৃতজ্ঞ, তবু মিত্রদের ইউক্রেনে অস্ত্র সরবরাহ বৃদ্ধি করতে হবে।

 

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দেওয়া বক্তব্যের একদিন পরই এই মন্তব্য করলেন ইউক্রেনের নেতা। ঐ বক্তব্যে বাইডেন জানান যে, যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে ৭০ কোটি ডলারের “উন্নততর রকেট ব্যবস্থা ও গোলাবারুদ” সরবরাহ করবে। হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে যে ইউক্রেন ঐ রকেটগুলো রুশ ভূখন্ডে আক্রমণ চালাতে ব্যবহার না করার অঙ্গীকার করেছে। এদিকে রাশিয়ার আক্রমণ চতুর্থ মাসে প্রবেশ করেছে।

 

বুধবার এক বিবৃতিতে বাইডেন বলেন, “রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে নিজেদের ভূখণ্ড রক্ষা করতে এই নতুন প্যাকেজটি তাদেরকে নতুন সক্ষমতা ও উন্নততর অস্ত্রে সজ্জিত করবে, যার মধ্যে যুদ্ধক্ষেত্রের গোলাবারুদসহ এইচআইএমএআরএস রয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “ইউক্রেনের স্বাধীনতার লড়াইয়ে সমর্থন যোগাতে ঐতিহাসিক সহায়তা প্রদানে আমরা বিশ্বকে নেতৃত্ব দেওয়া অব্যাহত রাখব।” বাইডেন তার বক্তব্যে হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেমস-এর সংক্ষিপ্ত রূপটি ব্যবহার করেন।

 

প্রশাসনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে, অস্ত্রের এই নতুন প্যাকেজটি সংঘাতের বর্তমান পর্যায়ের জন্য “বিশেষভাবে তৈরি”। সংঘাতটি বর্তমানে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে সংঘটিত হচ্ছে।

 

এদিকে, মঙ্গলবার দিনের শেষের দিকে নিউ ইয়র্ক টাইমস-এ প্রকাশিত এক মন্তব্যে বাইডেন লিখেন যে, তিনি রাশিয়ার সাথে যুদ্ধ চান না।

 

বাইডেন লিখেন, “আমি পুতিনের সাথে যতই দ্বিমত পোষণ করি না কেন, এবং তার কর্মকাণ্ডে যতই বিরক্ত হই না কেন, যুক্তরাষ্ট্র মস্কোতে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করবে না।” তিনি আরও লিখেন, “যতক্ষণ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র বা আমাদের মিত্রদের আক্রমণ করা হবে না, ততক্ষণ আমরা সরাসরি এই সংঘাতে জড়িয়ে পড়ব না, সেটা ইউক্রেনে লড়াইয়ের জন্য আমেরিকান সৈন্য পাঠিয়েই হোক বা রুশ বাহিনীকে আক্রমণ করেই হোক। আমরা ইউক্রেনকে তাদের সীমান্তের বাইরে হামলা চালাতে উৎসাহ দিচ্ছি না বা সক্ষম করছি না।”

সূত্রঃ ভয়েস অফ আমেরিকা

সর্বশেষ - এক্সক্লুসিভ