সোমবার , ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও বিচার
  4. আন্তর্জাতিক
  5. এক্সক্লুসিভ
  6. খুলনা
  7. খেলা
  8. গাজীপুর
  9. চট্টগ্রাম
  10. চাকুরীর খবর
  11. ঢাকা
  12. ফটোগ্যালারি
  13. বরিশাল
  14. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  15. বিনোদন

বরগুনা-ঢাকা রুটে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাসচলাচল বন্ধ

প্রতিবেদক
২৪ বাংলাদেশ নিউজ বার্তাকক্ষ
সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২২ ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ

বরগুনা-বাকেরগঞ্জ সড়কে দূরপাল্লার বাসচলাচলে বরিশালের রুপাতলি বাস মালিক সমিতির বাধা দেয়ার প্রতিবাদে বরগুনা-ঢাকা রুটে বাস চলাচল অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বরগুনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাবু রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
সাহাবুদ্দিন সাবু বলেন, কাউন্টার ইনচার্জ খোলা পরিবহন মালিক সমিতি ও বাস শ্রমিকরা বরগুনা-ঢাকা দূরাপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রেখে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন।
ঢাকা-বরগুনা রুটের পরিবহন কাউন্টার ব্যবস্থাপক ও বাস শ্রমিকদের অভিযোগ, গত একমাস ধরে বরগুনা থেকে বাকেরগঞ্জ হয়ে ঢাকা যাওয়ার পথে রুপাতলী বাস মালিক সমিতির লোকজন বাকেরগঞ্জে বসে বাসচলাচলে বাধা দেওয়াসহ বাস শ্রমিকদের মারধর করেন। এর প্রতিবাদে সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল থে‌কে অনির্দিষ্টকালের জন্য ঢাকা-বরগুনা রুটের সব ধরনের বাসচলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা। একইসঙ্গে মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করবেন বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।
ঢাকা বরগুনা রুটের সাকুরা পরিবহনের কাউন্টার পরিচালক মো. নাসির মোল্লা বলেন, দীর্ঘ এক যুগ ধরে বরগুনা-বাকেরগঞ্জ সড়ক দিয়ে চলাচল করে আসছে ঢাকা-বরগুনা রুটের যাত্রীবাহী কয়েক শ বাস।‌ একসময় ঢাকা থেকে বরগুনার দূরত্ব ১৫ ঘণ্টার বেশি হলেও পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর সেই দূরত্ব কমে আসে মাত্র ছয় ঘণ্টায়। কিন্তু গত একমাস ধরে রুট পারমিট না থাকার অজুহাতে সম্প্রতি বরগুনা-বাকেরগঞ্জ সড়কে ঢাকা-বরগুনা রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় বরিশালের বাস মালিক-শ্রমিকরা।
নাসির বলেন, এতে মির্জাগঞ্জ ও আমতলী ফেরি পার হয়ে বরগুনা থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে বরগুনা যাওয়া-আসা করতে হচ্ছে যাত্রীবাহী বাসগুলোকে। ফলে সময় লাগছে ১০ ঘণ্টার বেশি। এতে দুর্ভোগ পোহানোর পাশাপাশি পদ্মা সেতুর সুফল থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন এ রুটের যাত্রীরা।
বরগুনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাবু বলেন, আমরা রুপাতলী বাস মালিক সমিতির সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করেছি। বরগুনা সড়ক ও জনপথ (সওজ) কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও আলোচনা করেছি। সর্বশেষ বরগুনার জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছি। কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি। বাধ্য হয়েই দূরপাল্লার কাউন্টার পরিচালক ও বাস শ্রমিকরা ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

সর্বশেষ - এক্সক্লুসিভ